গাড়িতে চাপলে কি আপনার বমি বমি লাগে।

আমাদের মধ্যে অনেকের বাস বা টাক্সিতে চাপলেই বমি বমি ভাব কিংবা বমি হয়। তাই অনেক কে দূরের কোন জায়গা ভ্রমনে যেতে গেলে ট্রেনে বা প্লেনে যেতে হয়। এখন আমরা এই জটিল সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার ব্যাপারে আলোচনা করবো।

এই বমি বমি ভাব এড়াতে কি কি করনীয়ঃ

১। গাড়িতে বসে গাড়ির সামনের কাচের দিকে বা গাড়ির মধ্যে যে সব যন্ত্রপাতি থাকে তার দিকে না তাকিয়ে রাস্তা বা বাইরের মানুষ বা প্রকৃতি এ সবকে দেখুন। এর ফলে আপনার চোখ এর অন্তঃকর্ণ  আরাম পাবে। আবার যাত্রাপথের বিপরীতেও দেখবেন না বা গাড়ির উল্টো দিকে বসবেন না। এর ফলে সেনসরি অর্গানের অসামঞ্জস্যতা আসতে পারে। ফলে বমি হওয়ার সম্ভবনা বেড়ে যায়।

২। আবার গাড়িতে চেপে যদি শ্বাস-প্রশ্বাসের স্বাভাবিক ব্যায়ামগুলো রপ্ত করতে পারেন তাহলে খুব ভাল হয়। মাঝে মাঝে জোরে শ্বাস নিয়ে খুব ধীরে ধীরে ছাড়ুন। এর ফলে বমি ভাব কাটার সম্ভবনা থাকে।

৩। সবার প্রথমে গাড়িতে চাপলে কোনও অসুবিধা হবে না, মনকে এটাই বোঝান । এই শারীরবৃত্তীয় সমস্যাকে দূর করার জন্য আগে মানসিক জোরকে বাড়াতে হবে।

বমি
বমি

আপনি কি জানেন পেয়ারর মধ্যে কি কি গুন লুকিয়ে আছে।

৪। যদি গাড়ি পেট্রল এর মাধ্যমে চলে তাহলে পেট্রলের গন্ধ দূর করতে ব্যাগে সুগন্ধী রাখুন এবং মাঝে মধ্যে তা স্প্রে শরীরে করুন। তাছাড়া ব্যাগের মধ্যে কয়েকটি লেবু পাতা রাখুন ও গাড়িতে চেপে তা নাকের কাছে ধরুন মাঝে মাঝে।এর ফলে গা গোলানোর সমস্যা অনেকাংশে কমে যাবে।

৫। গাড়িতে চেপে সবসময় চেষ্টা করবেন কম ঝাঁকুনির সিট বাছার। এর ফলে সমস্যা অনেকটা কেটে যাবে।

৬। আবার অনেকের অভ্যাস আছে গাড়িতে চেপে মোবাইল ফোন ঘাঁটার আর এই মোবাইলের রশ্মি থেকেও বমি ভাব বাড়ে। তাই গাড়িতে বসে মোবাইল ফোন ঘাঁটার অভ্যাস পরিত্যাগ করুন।

৭। পারেন তো একটা কাজ করবেন একটানা গাড়িতে বসবেন না। যাত্রা পথে মাঝে মাঝেই নামুন, যদি আপনার ব্যক্তিগত গাড়ি না হয় তাহলে দীর্ঘ পথ যাওয়াকে দু’টি-তিনটি ভাগে ভাগ করে নিন। এমনিতেও দীর্ঘ যাত্রা পথের বাসগুলিও মাঝে মধ্যে এক একটি জায়গায় থামে। তখন পারেন তো সেখানে নেমে একটু হাঁটাচলা করে নিন। এর ফলে বমি ভাব কেটে যেতে পারে।

থাইরয়েড সমস্যা

অ্যালোভেরা গাছের উপকারিতা

One Comment

  1. Sk Rahamatulla March 29, 2019 Reply

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *